মন্ত্রী আসতেই তারা লাইনে দাঁড়ান, পরে চলে যান

মন্ত্রী আসতেই তারা লাইনে দাঁড়ান, পরে চলে যান

মন্ত্রী আসতেই তারা লাইনে দাঁড়ান, পরে চলে যান
মন্ত্রী আসতেই তারা লাইনে দাঁড়ান, পরে চলে যান

মন্ত্রী আসতেই তারা লাইনে দাঁড়ান, পরে চলে যান

সিলেট: ভোটের লাইনে শতাধিক নারী। তারা আসেন ভোট দিতে।

কিন্তু হঠাৎ উধাও হয়ে যায় ভোটের লাইন। পরে জানা গেল, তারা এ আসনের ভোটার নন, এসেছিলেন প্রার্থীর উপস্থিতিতে প্রক্সি দিতে।  

দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের ভোটগ্রহণের দিন রোববার (৭ জানুয়ারি) সকাল ১০ টায় দুর্গাকুমার পাঠশালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।  

নগরের ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে অবস্থিত বিদ্যালয়টি সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের ভোটকেন্দ্র।  

সকাল ১০টার দিকে যখন এ কেন্দ্রে ভোট দিতে আসেন নৌকার প্রার্থী এ কে আব্দুল মোমেন, এর আগে আগেই লাইনে দাঁড়িয়ে যাব ওই নারীরা। তাদের অনেকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নার্স বলে জানা গেছে। বিষয়টি কেন্দ্রে উপস্থিত সাংবাদিকদেরও নজর কাড়ে।  

কেন্দ্রে উপস্থিত সাংবাদিক সাদিকুর রহমান সাকি ও দেবাশীষ দেবু বলেন এ কে আব্দুল মোমেন যখন কেন্দ্রে ভোট দিতে আসেন, তখন ভোটের সারিতে শতাধিক নারী দাঁড়িয়ে ছিলেন। সাংবাদিকরা তাদের প্রতিক্রিয়া জানতে চান।  

তারা সাংবাদিকদের জানান, তাদের অনেকে ওসমানী মেডিকেলের নার্স। তারা নার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেতা ইসরাইল আলী সাদেকের নির্দেশে মোমেনের উপস্থিতিতে প্রক্সি দিতে লাইনে দাঁড়িয়েছেন। সাংবাদিকরা তাদের প্রশ্ন করলে তারা লাইন ছেড়ে চলে যান।  

ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নৌকার প্রার্থী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ভোটের দিন বিএনপি হরতালের নামে ঢং ঢাং করছে। আজ ভোটের দিন, উৎসবের দিন।  

তিনি বলেন, দেশে খুব সুন্দর পরিবেশ বিরাজমান। কোথাও জবরদস্তি নেই। গণতান্ত্রিক ধারা সমুন্নত রাখেন। আমাদের ভোট দিলে জনগণের মঙ্গল হয়।  

টানা তিনদিনের ছুটির কারণে ভোটার উপস্থিতিতে কিছুটা প্রভাব পড়েছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।  

ভোটার উপস্থিতির হার প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমেরিকাতেও কখনো ৪৪, কখনো ৩৩ শতাংশ ভোট হয়।

মোট ভোটারের এক তৃতীয়াংশ তরুণ ভোটারদের নিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।  

এ সসয় তার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সঙ্গে ছিলেন।  

ওই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মৃন্ময়  দাস ঝুটন বাংলানিউজকে বলেন, সকাল ৯টা পর্যন্ত ৪০ শতাংশ ভোট কাস্ট হয়েছে।  

সিলেটের ৬টি আসনে মোট প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন ৩৫ জন। তবে দুজন সরে যান। এসব আসনে মোট ভোটার ২৭ লাখ ১৫ হাজার ৩৩১ জন। ভোটকেন্দ্র ১ হাজার ১৩টি ও ভোট কক্ষ ৬ হাজার ৬টি।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৭, ২০২৩
এনইউ/আরএইচ

What's Your Reaction?

like

dislike

love

funny

angry

sad

wow